কিভাবে আল্লাহর সাথে কথা বলতে হয়?

মুনাজাত হল আল্লাহর সাথে কথা বলার মাধ্যম; আপনার হৃদয় থেকে একটি কথোপকথন হতে পারে। আল্লাহ্ আমাদের সাথে একটি সম্পর্ক চান। অতএব, আপনি তাঁকে বলতে পারেন যে আপনি কতটা কৃতজ্ঞ যে তিনি আপনাকে ভালোবাসেন। তিনি আপনাকে যা দেন তার জন্য আপনি কৃতজ্ঞ হতে পারেন। আপনি তাঁর সাথে এমন বিষয়গুলিও শেয়ার করতে পারেন যা আপনাকে উদ্বিগ্ন করে। আপনাকে অভিনব শব্দগুলি ব্যবহার করতে হবে না বা আপনার শব্দগুলি পুনরাবৃত্তি করার প্রয়োজন নেই। আল্লাহ্ ইতিমধ্যে আপনার প্রয়োজন জানেন। তিনি আপনার হৃদয় থেকে একটি আন্তরিক মুনাজাত খুঁজছেন। তাঁর প্রতি সৎ হোন; তিনি ইতিমধ্যে আপনার সম্পর্কে সব জানেন।

আপনি কিভাবে আল্লাহর কাছে মুনাজাত করতে পারেন তার উদাহরণ ঈসা নিজেই দিয়েছেন;

অতএব তোমরা এই ভাবে মুনাজাত করো; হে আমাদের বেহেশতী পিতা, তোমার নাম পবিত্র বলে মান্য হোক, তোমার রাজ্য আসুক, তোমার ইচ্ছা সিদ্ধ হোক, যেমন বেহেশতে তেমনি দুনিয়াতেও হোক; আমাদের প্রয়োজনীয় খাদ্য আজ আমাদেরকে দাও; আর আমাদের অপরাধগুলো মাফ কর, যেমন আমরাও নিজ নিজ অপরাধীদেরকে মাফ করেছি; আর আমাদেরকে পরীক্ষাতে এনো না, কিন্তু মন্দ থেকে রক্ষা কর। মথি ৬:৯-১৩

এটি এমন কোন মুনাজাত নয় যা আপনি করতে বাধ্য। আপনি এই মুনাজাতটি ব্যবহার করতে পারেন, তবে এই মুনাজাতে কী কী বিষয় রয়েছে তা আবিষ্কার করার চেষ্টা করুন। যাতে আপনি আপনার ব্যক্তিগত মুনাজাত এ ব্যবহার করতে পারেন। উদাহরণ স্বরূপ, কোন বিষয়গুলোর জন্য কৃতজ্ঞ, যেন আপনার বিশ্বাস আরো দৃঢ় হয় এবং যে সমস্ত ক্ষেত্রে আপনার সাহায্য লাগবে সেই সকল বিষয়গুলো তুলে ধরতে পারেন।

আমাকে কি নির্দিষ্ট সময়ে মুনাজাত করতে হবে?

না। আল্লাহ্ আপনাকে নির্দিষ্ট সময়ে মুনাজাত করতে বলছেন না। নিয়মিত মুনাজাত করা একটি ভাল অভ্যাস, উদাহরণস্বরূপ, আপনি যখন সকালে ঘুম থেকে উঠবেন এবং রাতে ঘুমানোর আগে। তবে সারাদিনও মুনাজাত করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, যখন আপনি কিছুর জন্য কৃতজ্ঞ হন বা সাহায্যের প্রয়োজন হয় বা প্রজ্ঞার প্রয়োজন হয়।

মুনাজাত করার আগে কি নিজেকে পরিষ্কার করতে হবে?

আপনি যে কোন সময় আল্লাহর কাছে মুনাজাত করতে পারেন। আপনি আপনার মনে বা আপনার মুখ দিয়ে আল্লাহর সাথে কথা বলতে পারেন; আপনি দাঁড়িয়ে বা বসে মুনাজাত করতে পারেন এবং আল্লাহর সাথে কথা বলার জন্য কিছু সময় নিতে পারেন। পরিষ্কার হওয়ার প্রয়োজন নেই কারণ আল্লাহ্ ইতিমধ্যেই (আধ্যাত্মিকভাবে) তাঁর পুত্র, ঈসা মসীহের মাধ্যমে আপনাকে শুদ্ধ করেছেন।

মুনাজাতের কিছু নির্দিষ্ট রীতি আছে কি?

আল্লাহ্ আপনাকে সমস্ত আন্তরিকতার সাথে মুনাজাত করতে বলেছেন। আপনি আল্লাহর প্রতি আপনার সম্মান দেখানোর জন্য মুনাজাত করার সময় নতজানু হতে পারেন, কিন্তু এটি হতেই হবে এমন নয়। আপনার চারপাশ থেকে বিভ্রান্তি এড়াতে আপনি আপনার চোখ বন্ধ করতে পারেন। আপনাকে বিশেষ বা কঠিন শব্দও ব্যবহার করতে হবে না। সবচেয়ে বড় কথা, আপনার হৃদয় থেকে যেকোনো ভাষায় কথা বলুন – আল্লাহ্ সব শোনেন।

সবাই নামাজ পড়তে পারবে কি?

আল্লাহ্ প্রত্যেক ব্যক্তির কথা শোনেন যিনি তাঁর সাথে কথা বলছেন। আপনি গরীব বা ধনী, যুবক বা বৃদ্ধ, নারী বা পুরুষ হতে পারেন। আল্লাহর কাছে প্রত্যেক ব্যক্তিই সমান; তিনি সবাইকে ভালোবাসেন এবং তাদের মুনাজাত শোনেন।

আমি কোন ভাষায় মুনাজাত করব?

আপনি অভিনব শব্দ বা নির্দিষ্ট বাক্যাংশ ছাড়া আল্লাহর সাথে কথা বলতে পারেন; আপনার নিজের ভাষায় মুনাজাত করুন, এবং আপনার হৃদয় থেকে তাঁর সাথে কথা বলুন।

নির্দিষ্ট মুনাজাত আছে কি?

আল্লাহ্ আমাদের ভালোবাসেন এবং আমাদের সাথে একটি সম্পর্ক খুঁজছেন। তাহলে তিনি কিভাবে আমাদের একই শব্দ বারবার মুনাজাত করাতে চান? আপনি যদি বিবাহিত হয়ে থাকেন, নিশ্চয়ই আপনার স্ত্রীকে প্রতিদিন একই কথা বলবেন না, তাই না? আল্লাহর সাথেও বিষয়টি একই রকম। তিনি আমাদের মনের কথা শুনতে চান। যে জিনিসগুলির জন্য আমরা কৃতজ্ঞ এবং যে বিষয়গুলি আমাদের উদ্বিগ্ন করে। আপনি যদি আল্লাহ্কে বিশ্বাস করেন, তাহলে আপনি লক্ষ্য করবেন যে তিনি আমাদের জন্য চিন্তা করেন।

আমি কি আমার মুনাজাতের উত্তর পাবো?

সবসময় আপনি আল্লাহর কাছ থেকে একটি তাত্ক্ষণিক উত্তর নাও পেতে পারেন। কিন্তু আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি যে আল্লাহ্ অবশ্যই এটা স্পষ্ট করেছেন যে তিনি শুনছেন। কখনও কখনও আমার সমস্যাগুলি একটি অসাধারণ উপায়ে সমাধান করা হয়েছে। কখনও কখনও আমি কিতাবুল মোকাদ্দস পড়ার সময় উত্তর খুঁজে পাই। কখনও কখনও আপনাকে ধৈর্য ধরতে হতে পারে। কারণ, আল্লাহ্ হয়তো আপনার ওই বিষয়টা নিয়ে কাজ করছেন। ঠিক যেমন একজন বাবা সবসময় একটি শিশু যা চায় তা নাও দিতে পারে, তবুও, তিনি নিশ্চিত শিশুটির প্রয়োজনীয় বিষয়াদী দিয়ে থাকেন।

আমার কি বাপ্তিস্ম নেওয়া দরকার?
অনলাইন কিতাবুল মোকাদ্দস এবং আরও জানুন
প্রস্তাবিত সিনেমা
আপনার জন্য মুনাজাত!
যোগাযোগ
সারসংক্ষেপ